নোটিশঃ
দৈনিক প্রতিবেদন অনলাইন নিউজ পোর্টালের পরীক্ষামূলক সম্প্রচারে আপনাকে স্বাগতম। সারাদেশের প্রতিটি জেলা, উপজেলা ও ক্যাম্পাস ভিত্তিক প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে- আগ্রহীরা ই-মেইল করুনঃ dailyprotibedon24@gmail.com
সংবাদ শিরোনামঃ
চরভদ্রাসনে বেইলি ব্রীজের বেহাল দশা মেয়েকে দেখতে টিকিট কেটেও দেশে আসতে পারলো না প্রবাসী বাবা আকর্ষণীয় বেতন দিয়ে তিন হাজার কেবিন ক্রু নেবে এমিরেটস মাহফুজুর রহমানের সঙ্গে বিচ্ছেদ, ফের বিয়ে করলেন ইভা রহমান সিঙ্গাপুর-মালয়েশিয়ার চেয়ে বাংলাদেশের ডেঙ্গু পরিস্থিতি ভালো ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকা বাংলাদেশীদের সুখবর দিলো মালদ্বীপ ওমরায় খরচ হচ্ছে প্রায় দ্বিগুন মালয়েশিয়ায় ফিরতে পারছেন না ছুটিতে থাকা বাংলাদেশীরা আমিরাতে আইপিএলে দর্শক প্রবেশের অনুমতি মিললেও থাকছে যেসব বিধিনিষেধ কাতারে ডাস্টবিনের বাহিরে ময়লা-আবর্জনা ফেললে ১০ হাজার রিয়াল জরিমানা কাতারে বাংলাদেশি মালিকানাধীন রেস্টুরেন্টে আকর্ষণীয় বেতনে চাকরির সুযোগ কাতারে সতর্কতা লঙ্ঘনের জন্য দেড় হাজার মানুষকে জরিমানা কাতারে বাংলাদেশি টাকায় রিয়ালের সর্বোচ্চ রেট দিচ্ছে আল জামান এক্সচেঞ্জ হজ ও ওমরাহ কার্যক্রম নিয়ে আলোচনায় সৌদি আরবে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী যে কারণে মালয়েশিয়া থেকে মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হলো তাদেরকে
যে বই পড়ে ইসলাম গ্রহণ করেন বিজ্ঞানমনষ্ক সুইডিশ তরুণী

যে বই পড়ে ইসলাম গ্রহণ করেন বিজ্ঞানমনষ্ক সুইডিশ তরুণী

যে বই পড়ে ইসলাম গ্রহণ করেন বিজ্ঞানমনষ্ক সুইডিশ তরুণী

সুইডিশ নাগরিক হেলেনার জন্ম ও বেড়ে ওঠা রাজধানী শহর স্কটহোমে। একটি ধর্মবিমুখ পরিবারে জন্ম নিলেও কলেজজীবনে পা দেওয়ার পর জীবনের অর্থ খুঁজতে শুরু করেন হেলেনা। ইসলামসহ অন্যান্য ধর্ম নিয়ে দীর্ঘ পাঠের পর তাঁর মনে হয় ইসলামই মানুষকে সবচেয়ে ভারসাম্যপূর্ণ, আধুনিক ও স্থিতিশীল জীবনের সন্ধান দিয়েছে। নিজের ইসলাম গ্রহণ নিয়ে তিনি বলেন—

 

পার্থিব বিশ্বাস নিয়ে বেড়ে ওঠা : একটি প্রথাগত খ্রিস্টান পরিবারে আমার জন্ম। আমি পরিবারে কখনো স্রষ্টার নাম উচ্চারণ করতে শুনিনি, কাউকে কখনো প্রার্থনা করতে দেখিনি। আমাকে শুধু তাই শেখানো হয়েছে, যা আমার পার্থিব জীবনে সাফল্য বয়ে আনবে। তবে আমরা ক্রিসমাস, স্টার সানডে, মিড-সামারসহ সব ধর্মীয় দিবস উদযাপন করতাম। আমরা ধর্মীয় দিবসগুলো উদযাপন করতাম সুইডিশসমাজের রীতি অনুসারে।

 

ধর্মহীন মনোভাব লালন : একটি ফুরফুরে ভাব নিয়ে আমি হাই স্কুলে ভর্তি হই। আমি ভাবতাম, কোনো কিছু আমাকে থামাতে পারবে না। আমার গ্রেড যথাসম্ভব ভালো ছিল এবং আত্মবিশ্বাস ছিল অত্যন্ত উঁচু। ধর্ম কখনো আমার মনে স্থান পায়নি। অন্যদিকে আমি যাদের ধার্মিক হিসেবে জানতাম—যারা ধর্মের আলো খুঁজে পেয়েছে, তারা ছিল তুলনামূলক বেশি হতাশ ও অসুস্থ। তারা প্রত্যাশা করে, যিশু তাদের জীবন চলার শক্তি দান করবেন।

 

জীবনের প্রকৃত অর্থের সন্ধানে : কলেজজীবনে পা রেখে আমি জীবনের অর্থ খুঁজতে থাকি। তবে আমার জন্য কোনো ধর্মকে বেছে নেওয়া কঠিন ছিল। কেননা আমার দৃষ্টিতে সব যুদ্ধ ও সমস্যার পেছনে ধর্মই দায়ী ছিল। ফলে আমি আমার একটি নিজস্ব দর্শন দাঁড় করালাম। আমি নিশ্চিত ছিলাম, সব কিছু কোনো এক শক্তি সৃষ্টি করেছেন। কিন্তু তাঁকে ঈশ্বর বলতে আমি প্রস্তুত ছিলাম না। কেননা একজন খ্রিস্টান হিসেবে মনের ক্যানভাসে লম্বা দাড়িবিশিষ্ট একজন বৃদ্ধের ছবি আঁকা ছিল স্রষ্টারূপে। আর একজন বৃদ্ধ কিভাবে মহাবিশ্ব সৃষ্টি করবেন! তবে আমি যত বেশি জীবনের অর্থ খুঁজছিলাম তত বেশি হতাশ হয়ে যাচ্ছিলাম। জীবনকে একটা কারাগার বলেই মনে হচ্ছিল আমার কাছে।

 

ইসলাম সম্পর্কে ভুল জ্ঞান : এ সময় আমি বৌদ্ধ ও হিন্দু ধর্ম নিয়ে বিশদ অধ্যয়নের সুযোগ পাই। তাদের বিশ্বাস ও ইবাদতের পদ্ধতিগুলো বিস্তারিতভাবে জেনেছিলাম। কিন্তু ইসলাম সম্পর্কে কিছুই জানতাম না। যদিও আমি হাই স্কুলের পাঠ্য বইয়ে মুসলিম উপাসনারীতি সম্পর্কে জেনেছিলাম। অন্যদিকে মিডিয়া সূত্রে আমার বিশ্বাস ছিল মুসলিমরা তাদের স্ত্রী ও সন্তানদের অত্যাচার করে। তারা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত এবং মানুষ হত্যায় দ্বিধা করে না।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন




© ২০২১ | দৈনিক প্রতিবেদন কর্তৃক সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত

Design BY NewsTheme