নোটিশঃ
দৈনিক প্রতিবেদন অনলাইন নিউজ পোর্টালের পরীক্ষামূলক সম্প্রচারে আপনাকে স্বাগতম। সারাদেশের প্রতিটি জেলা, উপজেলা ও ক্যাম্পাস ভিত্তিক প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে- আগ্রহীরা ই-মেইল করুনঃ dailyprotibedon24@gmail.com
সংবাদ শিরোনামঃ
প্রবাসীদের জন্য হাসপাতাল হচ্ছে ঢাকায়ঃ প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রী মানুষের পাশে অতন্দ্র প্রহরীর মতো রয়েছে সরকারঃ তথ্যমন্ত্রী আরব আমিরাতে লটারি জিতে কোটিপতি হয়ে গেলেন ২ বছরের শিশু! দেশে আসতে চাওয়া প্রবাসীদের পাসপোর্টের মেয়াদ বাড়ানো নিয়ে সতর্কতা দেশে বিএনপির ইন্ধনেই যত সাম্প্রদায়িক হামলা হচ্ছেঃ ওবায়দুল কাদের কাতার প্রবাসী ইমামকে নিঃস্ব করলেন একাধিক বিয়ে পাগলী স্ত্রী কাতার থেকে দেশে এসেই দুর্ঘটনায় প্রান হারালেন সোহেল অবশেষে বাবার বাড়ি ফিরে গেলেন তুলে নিয়ে বিয়ে করা সেই তরুণী মদনে জাতীয়তাবাদী তাঁতী দলের উপজেলা ও পৌর আহবায়ক কমিটি গঠন যে ৪ ধরনের মানুষকে বিয়ে করবেন না নওগাঁয় পুলিশের ওপর হামলা ও ভাঙচুর মামলায় বিএনপির ৬ নেতা কারাগারে কাতারের আইনসভায় দুই নারীকে নিয়োগ দিলেন আমির শেখ তামিম অপরাধ প্রবণতা কমে গেলেও আরব আমিরাতে জেলে ৫ শতাধিক বাংলাদেশি ফ্লাইটে যাত্রী সংখ্যা বাড়ছে, এক দিনে আরব আমিরাত গেলেন ২৩৯১ জন আরব আমিরাতে যাওয়ার জন্য বিমানবন্দরে এসেও যাওয়া হলো না আবু মুসার
মুসলিম বৃদ্ধার মাতৃস্নেহে মুগ্ধ হয়ে ইসলাম গ্রহণ

মুসলিম বৃদ্ধার মাতৃস্নেহে মুগ্ধ হয়ে ইসলাম গ্রহণ

ফিলিপাইনের নাগরিক আবদুস সালাম তাগামোলিয়ার জন্ম একটি ক্যাথলিক খ্রিস্টান পরিবারে। শিক্ষাজীবনে বিভিন্ন খ্রিস্টান সংগঠনের সক্রিয় কর্মী হিসেবে কাজ করেন। কর্মজীবনের দীর্ঘ সময় মুসলিমদের সঙ্গে কাটান। মুসলমানের জীবনযাত্রা, বিশ্বাস, ইবাদত তাঁকে ইসলামের প্রতি আগ্রহী করে।

১৯৯৪ সালে তিনি ইসলাম গ্রহণ করেন। সিঙ্গাপুরের ‘দ্য মুসলিম রিডার্স’ পত্রিকার জানুয়ারি-জুন, ১৯৯৬ সংখ্যায় প্রকাশিত তাঁর ইসলাম গ্রহণের বর্ণনা ভাষান্তর করেছেন মো. আবদুল মজিদ মোল্লা।

ধার্মিক পরিবারে বেড়ে উঠা : একজন রোমান ক্যাথলিক পরিবারের সদস্য হিসেবে শৈশব থেকেই আমি খুবই ধার্মিক ছিলাম। ধর্মোপদেশ দিতে প্রায় একজন যাজক আমাদের অঞ্চলের ধর্মসভায় আসতেন। আমি খুব মনোযোগসহ তার বক্তব্য শুনতাম এবং এই ধর্মসভার জন্য অপেক্ষায় থাকতাম।

আমি হাই স্কুলে উত্তীর্ণ হওয়ার পরও আমার ভেতর ধর্মের প্রতি একই ধরনের আকুলতা কাজ করত। কোটাবাটোর ‘নটর ডেম অব ডুলাওয়ানে’ থাকা অবস্থায় আমি ‘দ্য স্টুডেন্ট অব ক্যাথলিক অ্যাকশন’-এর সক্রিয় সদস্য ছিলাম। আমি কখনোই কোনো ধর্মীয় অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত থাকতাম না এবং নিয়মিত যাজকের সঙ্গে দেখা করতাম। তিনিও আমাকে স্নেহ করতেন এবং আমার প্রশংসা করতেন।

এরই ভেতর আমার কলেজে ভর্তির সময় হলো। আমি একজন স্বনির্ভর শিক্ষার্থী হিসেবেই লেখাপড়া চালিয়ে নিলাম। কোটাবাটো শহরে অবস্থিত নটর ডেম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক সম্পন্ন করি। স্নাতক শেষ করার পর পর ‘দ্য অবলেকস অব মেরি ইমাকুলেইট’ নামক একটি মিশনারি সংগঠনের কর্মশালায় অংশ নিই।

কিন্তু আমি ‘সাইকোলজিক্যাল’ (মানসিক) পরীক্ষায় ব্যর্থ হই। কিন্তু এর পর আমি আবারও চেষ্টা করি এবং উত্তীর্ণ হই। তবে এক বছর পর কোটাবাটোর বিশপের সঙ্গে বিতর্কে লিপ্ত হওয়ায় আমাকে বরখাস্ত করা হয়।

মুসলিমদের সঙ্গে দীর্ঘ সময় কাজের অভিজ্ঞতা : এরপর আমি জোলোর নটর ডেম স্কুলের শিক্ষক হিসেবে যোগদান করি। কিন্তু মোরো যোদ্ধাদের সঙ্গে সেনাবাহিনীর সংঘাত শুরু হওয়ায় ১৯৭৪ সালে মার্চের শেষভাগে আমাদের ক্লাস বন্ধ হয়ে যায়।

আমি কোটাবাটোতে ফিরে আসি এবং একটি গৃহায়ণ প্রকল্পে যোগদান করি। আমাকে প্রকল্পের ২৭৫ জন শ্রমিকের সঙ্গে ‘ফোরম্যান’ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। শ্রমিকদের ৯৫ শতাংশ ছিল মুসলিম। বাকিরা খ্রিস্টান। মুসলিমদের সঙ্গে আমি ১৩ বছর কাজ করি। শুক্রবার আমি তাদের দ্রুত ঘরে ফেরার অনুমতি দিতাম, যেন তারা জুমার নামাজে অংশগ্রহণ করতে পারে।

দীর্ঘকাল বৃদ্ধা মুসলিমের সঙ্গে অবস্থান : ১৮ বছর ধরে আমি একজন বিধবা বৃদ্ধার বাসায় বসবাস করি। তিনি আমাকে সন্তানের মতো দেখতেন এবং আমিও তাঁকে মায়ের মতো দেখতাম। তাঁর মৃত্যুর পর আমি স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করতে মনোযোগী হই। আমি একাধিক সন্তান নিয়ে একজন বিধবা নারীর জীবনসংগ্রাম কাছ থেকে দেখেছিলাম। তাই থিসিসের শিরোনাম দিয়েছিলাম—‘ফেমিনিসেশন অব প্রভার্টি অ্যামঙ্গ সিলেক্টেড উইডোজ অব পাতিকুল, সুলু।’

রোজা পালন ও ইসলাম গ্রহণ : ধর্মীয় সম্প্রীতির জায়গা থেকে ১৯৯৪ সালে আমি রোজা রাখার সিদ্ধান্ত নিই। কিছুদিন রোজা রাখার পর প্রশান্তি অনুভব করি এবং স্বাস্থ্যেরও উন্নতি হয়। শেষ পর্যন্ত আমি সামাজিক বিজ্ঞানে মাস্টার্স সম্পন্ন করতে সক্ষম হই। আল্লাহর অনুগ্রহ, মুসলিমদের সংস্পর্শ, আমার পর্যবেক্ষণ ও গবেষণার পর আমি বুঝতে পারি ইসলামই সত্য ধর্ম। ফলে আমি ইসলাম ধর্মে দীক্ষিত হই।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© ২০২১ | দৈনিক প্রতিবেদন কর্তৃক সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত

Design BY NewsTheme