নোটিশঃ
দৈনিক প্রতিবেদন অনলাইন নিউজ পোর্টালের পরীক্ষামূলক সম্প্রচারে আপনাকে স্বাগতম। সারাদেশের প্রতিটি জেলা, উপজেলা ও ক্যাম্পাস ভিত্তিক প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে- আগ্রহীরা ই-মেইল করুনঃ dailyprotibedon24@gmail.com
সংবাদ শিরোনামঃ
চরভদ্রাসনে বেইলি ব্রীজের বেহাল দশা মেয়েকে দেখতে টিকিট কেটেও দেশে আসতে পারলো না প্রবাসী বাবা আকর্ষণীয় বেতন দিয়ে তিন হাজার কেবিন ক্রু নেবে এমিরেটস মাহফুজুর রহমানের সঙ্গে বিচ্ছেদ, ফের বিয়ে করলেন ইভা রহমান সিঙ্গাপুর-মালয়েশিয়ার চেয়ে বাংলাদেশের ডেঙ্গু পরিস্থিতি ভালো ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকা বাংলাদেশীদের সুখবর দিলো মালদ্বীপ ওমরায় খরচ হচ্ছে প্রায় দ্বিগুন মালয়েশিয়ায় ফিরতে পারছেন না ছুটিতে থাকা বাংলাদেশীরা আমিরাতে আইপিএলে দর্শক প্রবেশের অনুমতি মিললেও থাকছে যেসব বিধিনিষেধ কাতারে ডাস্টবিনের বাহিরে ময়লা-আবর্জনা ফেললে ১০ হাজার রিয়াল জরিমানা কাতারে বাংলাদেশি মালিকানাধীন রেস্টুরেন্টে আকর্ষণীয় বেতনে চাকরির সুযোগ কাতারে সতর্কতা লঙ্ঘনের জন্য দেড় হাজার মানুষকে জরিমানা কাতারে বাংলাদেশি টাকায় রিয়ালের সর্বোচ্চ রেট দিচ্ছে আল জামান এক্সচেঞ্জ হজ ও ওমরাহ কার্যক্রম নিয়ে আলোচনায় সৌদি আরবে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী যে কারণে মালয়েশিয়া থেকে মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হলো তাদেরকে
বিদেশে মারা গেলে ক্ষতিপূরণ আদায় করবেন যেভাবে

বিদেশে মারা গেলে ক্ষতিপূরণ আদায় করবেন যেভাবে

বিদেশে মারা গেলে ক্ষতিপূরণ আদায় করবেন যেভাবে

ভাগ্য বদলাতে দূর দেশে যান প্রবাসীরা। কিন্তু তাদের সবার ভাগ্য কি বদ’লায়? অনেকে যান শার্ট প্যান্ট পরে ফিরে আ’সেন ক’ফিন বন্দি হয়ে। প্রবাসে বাংলা’দেশিদের মৃ’ত্যুর বড় একটি কারণ সড়’ক দু’র্ঘ’টনা। অন্য একটি বড় কারণ হৃ’দরো’গ বা হার্ট অ্যা’টাকে আ’ক্রা’ন্ত ‘হয়ে মা’রা যাওয়া। মহামারী ক’রো’নাভা’ইরাস হানা দেবার পর বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশি এ রো’গে মা’রা গেছেন।

 

দূর দেশে প্রিয়জনের মৃ’ত্যুর খবর দে’শে পরিবারের কাছে নিশ্চয় অত্য’ন্ত বেদনার। এমন কঠিন সময়ে মৃ’ত ব্যক্তির পরিবার ঠিক করে উঠতে পারে না কিভা’বে ম’রদে’হ দেশে আনা যায়। যাদের আর্থি’ক সামর্থ্য নেই তারা তো মহা দুশ্চিন্তায় পড়ে যান। কিন্তু বাস্তবতা হলো, বৈ’ধ উপায়ে বিদেশ গেছেন এমন যেকোনো প্রবা’সীকর্মীর ম’র’দেহ দেশে আনার দায়িত্ব সর’কারের।

 

শুধু এতো’টুকুই নয়, ম’র’দেহ পরি’বহন, দা’ফন, কর্মক্ষেত্র থেকে ক্ষ’তিপূ’রণ আদায় এবং আর্থিক ক্ষ’তিপূ’রণ দেয় সরকার। এই ক্ষতিপূরণ ৩ লাখ টাকা। সম্প্র’তি করোনায় মা’রা যাওয়া প্রবাসী ব্যক্তির পরিবা’রকেও সম পরিমাণ ক্ষ’তি পূরণ দিচ্ছে সরকার। তবে বিদেশ থেকে ম’র’দেহ আন’য়ন ও ক্ষতিপূরণ আদা’য়ের জন্য দরকার যথা’যথ প্রক্রিয়ায় আবেদন।

 

এই আবে’দন গ্রহণ করে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈ’দেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের প্রতি’ষ্ঠান ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড। এই কাজে সহযোগিতা দেয় বাংলাদেশের পররা’ষ্ট্র মন্ত্রণালয়। সর্বনি’ম্ন ৩ দিনের মধ্যে ম’রদে’হ আনা আইনত বা’ধ্যতা’মূলক। আর ক্ষতিপূরণ দেয়ার সময়সীমা স’র্বোচ্চ ৬ মাস। প্রবা’সীর পরিবারের সম্মতি থাকলে লা’শ সংশ্লিষ্ট দেশে দাফনের ব্যব’স্থাও করে সরকার।

 

একটি বিষয় খেয়াল রাখ’তে হবে, ক’রো’নায় মৃ’ত ব্য’ক্তির ম’রদেহ পরিব’হন করার নিয়ম না থাকায় এসব ‘লা’শ দেশে আনা হচ্ছে না। যে দেশে মা’রা যাচ্ছেন সেখা’নেই দা’ফন করা হচ্ছে।
২০১৯ সালের এক হিসাবে দেখা যায়, ওই বছরের জানুয়ারি থেকে নভেম্বর পর্যন্ত প্রায় সাড়ে তিন হাজার প্রবাসীর মৃ’তদেহ এসেছে।

 

এসব মৃ’ত’দেহ বহন ও দাফনের জন্য স্বজ’নদের প্রায় দেড় কো’টি টাকা দিয়েছে ওয়ে’জ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড। এছা’ড়া সংস্থাটি আর্থিক অনুদান দিয়েছে এক’শো কোটি টাকার বেশি।

প্রবাসে কোনো ব্যক্তি মা’রা গেলে সেখানে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতা’বাস বা হাইকমিশনে যোগাযোগ করতে হয়। তারা বি’ষয়টি দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণাল’য় জানায়।

 

মৃত কর্মীর লা’শ দাফন ও পরিবহন বাবদ ৩৫,০০০ টাকা এবং আর্থিক সাহায্য হিসাবে ৩ লক্ষ টাকা পরিবা’রকে প্রদানে Flow Chart:

বিদেশে মারা গেলে ক্ষতিপূরণ আদায় করবেন যেভাবে

প্রবাসী ব্যক্তি’র পরিবারকে নিজ নিজ জেলায় অবস্থি’ত জেলা জনশক্তি কার্যাল’য় অথবা ঢাকায় অবস্থিত ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডে কাছে আবেদন করতে হয়। এর জন্য নি’র্দিষ্ট একটি ফরম পূরণ করতে হয়। এই ফরম ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণবোর্দের ওয়েবসাইটে পাওয়া যায়।

 

বিদেশে মারা গেলে ক্ষতিপূরণ আদায় করবেন যেভাবে

মৃ’তের লা’শ দেশে পাঠাতে নিয়োগক’র্তা খরচ বহন করতে অপারগ’তা প্রকাশ করলে ও মৃ’তের পরিবার লা’শ দেশে আনার জন্য খরচ বহনে স’ক্ষম না হলে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ তহবিল থেকে অর্থায়ন করা হয়।
বিমানব’ন্দর থেকে লা’শ গ্রহণের সময় মৃ’তের পরিবা’রকে লা’শ পরিবহন ও দা’ফন বাবদ ৩৫ হাজা’র টাকার চেক দেয় কল্যাণবোর্ড।

 

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রবাসী কল্যাণ ডেস্ক থেকে এই চেক প্রদান করা হয়। এজন্য মৃ’ত প্রবা’সী শ্রমিকের স্বজনকে প্রয়ো’জনীয় কাগজপত্র দেখাতে হয়। যার মধ্যে র’য়েছে জাতীয় পরিচয়’পত্র, পরিবারের সদস্য স’নদ, লা’শ পরিবহন ও দা’ফন খরচের অর্থ গ্রহণের জন্য ক্ষ’মতা অর্প’ণপত্র সঙ্গে আনতে হবে।

 

বিদেশে মারা গেলে ক্ষতিপূরণ আদায় করবেন যেভাবে

এসব কাগজপত্রের নমুনা কপি পাওয়া যাবে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের ওয়েবসাইটে। বিদেশে বৈধভাবে যাওয়া মৃ’ত কর্মীর পরিবারকে ওয়েজ আ’র্নার্স কল্যাণ বোর্ড থেকে আর্থিক অনুদান দেওয়া হয়। ২০১৩ সালের ১ এপ্রিল থেকে প্রবা’সে মা’রা যাওয়া কর্মীর প্রত্যেক পরিবার আ’র্থিক অনুদান হিসেবে পাচ্ছে ৩ লাখ টাকা।

 

যা ছয় মাসের মধ্যে পরি’শোধ করার কথা। অনুদান পেতে মৃ’ত প্রবা’সী কর্মীর স্বজন’কে দাখিল করতে হয় প্রয়োজনীয় কাগজপত্র। এর মধ্যে রয়েছে— ১. ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, পৌরসভার মেয়র, সিটি করপোরেশন কাউন্সিলরের কাছ থেকে দাফত’রিক প্যাডে মৃ’তের পরিবারের সদস্য সনদ।

 

এই সনদ সং’শ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সিটি করপো’রেশন এলাকার জন্য অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃ’ক সত্যায়িত হতে হবে। ২. চারশো’ টাকার নন-জুডি’শিয়াল স্ট্যাম্পে দায়’মুক্তি সনদ, অঙ্গীকারনামা ও ক্ষম’তা অর্প’ণপত্র সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, পৌরস’ভার মেয়র, সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর কর্তৃক স্বাক্ষরিত ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সিটি করপোরেশন এলাকার জন্য অতি’রিক্ত জেলা ম্যাজি’স্ট্রেট কর্তৃক সত্যা’য়িত হতে হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© ২০২১ | দৈনিক প্রতিবেদন কর্তৃক সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত

Design BY NewsTheme