নোটিশঃ
দৈনিক প্রতিবেদন অনলাইন নিউজ পোর্টালের পরীক্ষামূলক সম্প্রচারে আপনাকে স্বাগতম।
সংবাদ শিরোনামঃ
গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে ফেন’সিডিলসহ দুই নারী আটক যেভাবে সন্ধান মিলেছে আবু ত্বহা মুহাম্মাদ আদনানের জোরপূর্বক গরুর মাংস খাওয়ানোকে কেন্দ্র করে ছুরিকাঘাতে যুবকের মৃত্যু মহামান্য রাষ্ট্রপতিকে নিয়ে কবি মুখলেছ উদ্দিনের লিখা “মেঘনার পাড়ে সোনার মানুষ” মাগুরার শ্রীপুরে জনসচেতনতা বাড়াতে ইউএনওর মোবাইল কোর্ট পরিচালনা নাটোরে হাজেরা ক্লিনিকে পায়ে হেটে অপারেশন থিয়েটারে ঢুকে বের হলেন লাশ হয়ে সন্ধান মিলেছে আবু ত্বহা মুহাম্মাদ আদনানের? আবু ত্বহা মুহাম্মাদ আদনানকে উদ্ধারে কাজ করছে ডিবি পুলিশ আবু ত্ব-হার আদনানকে নিয়ে ক্রিকেটার শুভর আবেগঘন স্ট্যাটাস গাইবান্ধায় সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নিয়ে ফল উৎসব করোনাকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা বিষয়ে গাইবান্ধায় সচেতনতামুলক ভ্রাম্যমাণ প্রচারণা ফরিদগঞ্জে যুবদল নেতা মতিনের বাবার মৃত্যুতে আলহাজ্ব এম এ হান্নানের শোক প্রকাশ আবু ত্ব-হা আদনানের সন্ধান চেয়ে স্ত্রী ও পরিবারবর্গের সংবাদ সম্মেলন ইস’রাইলের বিরুদ্ধে কথা বলায় আবু ত্ব-হা আদনান নিখোঁজঃ ভিপি নুর কুয়াকাটার বিখ্যাত ইলিশ রেস্টুরেন্টে খাবারের দাম তালিকা
প্রেম করতে না পারার কষ্ট

প্রেম করতে না পারার কষ্ট

প্রেম করতে না পারার কষ্ট

ক্লাস ১ বা ২ তে পড়ি। বাচ্চা বয়সে স্কুলের এক ফ্রেন্ডকে খুব মেরেছিলাম।কারন, সে আমাকে গালি দিয়েছিলো। মারামারির ব্যাপারটা আব্বুর এক ফ্রেন্ড দেখে দৌড়ে এসে আমাকে বুঝিয়ে-সুঝিয়ে ক্লাসে পাঠিয়ে দিলো। তারপর খবরটা গেলো আব্বুর কানে।আব্বুর থেকে গেলো আম্মুর কানে। তারপর থেকে প্রতিদিন স্কুলে আসার সময় আম্মু বলতো, “স্কুলে যেয়ে কারো সাথে মারামারি করবিনা,ঝগড়া করবিনা।” এভাবে বুঝতে বুঝতে একদিন অনেক বুঝে গেলাম। কেউ কিছু বললেও গায়ে মাখতাম না। ক্লাস ৩ এর পর আর কখনো কোনো গ্যাঞ্জামে জড়িয়েছি কি-না মনে পড়েনা।

নিজের বাগানের ফলের চেয়ে পরের বাগানের ফলে স্বাদ হয়তো একটু বেশিই থাকে।
পাশের বাগা’নের আম কুড়িয়ে নিয়ে গে’ছিলাম বাসায়। আম্মু দেখলো, তারপর থেকে অনু’মতি ছাড়া অন্যের গাছের ফল খা’ওয়া নিষেধ। এ জীবনে প-রের গাছের আম , লিচু ,তাল আর খেজুরে’র রস চুরি করে খাওয়ার স্বাধ আর কখনও পাওয়া হলোনা।

প্রাই’মারি পার করে মাধ্য’মিকে আস’লাম। বয়স ষোলো’তে ফুল ফুটলো। রগ-চটা স্বভাব আর ঘাড়ের রক কয়েকটা ত্যাড়া থাকায় রৌদ্রের তাপে ফুল গেলো শুকিয়ে। শুকা’নোর আগে বলে গেছিলো, “এমন ত্যাড়া স্বভাবের হলে আর ফুল নিয়ে এতো আদিক্ষ্যেতা দেখালে কপালে কোনো ফুল জুটবেনা।” ফু-লের মুখে ফুল-চন্দন পড়েছে।

আরও পড়ুনঃ মৃত মানুষের শেষ ইচ্ছা

স্কুল শেষে পা রাখলাম কলেজে। কোনোমতে ফাস্ট ইয়ার পার করতেই কলেজ ক্যাম্পাস ভরে গেলো জুনিওরে। বোরখাপরা এক জুনিওর করলো প্রপোজ। চোখ কান বন্ধ করে সাত দিন ফোনে প্রচুর প্রেম করার পর মনে হলো এ স্বর্গসুখ এবং বালিকার প্রেমের পদ্ম আমার জন্য নহে। ততোদিনে আমি তার চাঁদমুখ খানা একবারও দেখার সৌভাগ্য করিনাই। এবার মনে হলো পানি বরফ হবার আগেই মীমাংসা করা দরকার। বুঝাতে বুঝাতে বুঝের গল্পের ঝুলিতে বালি। অত:পর পরিক্ষার দোহাই দিয়ে দয়া আর দোয়া উভয়ের সাথে বিচ্ছেদের আগুনে দিলাম ঘি। সাথে ছিলো, ‘তোমাকে আমি ক্ষমা করবোনা,অভিশাপ দিলাম’ মধুর বাক্য।
তারপর প্রেম আর পড়াশোনা দুইটাই উঠলো নিলামে। কলেজ শেষ করে ভার্সিটিতে পা রাখতেই করোনায় হারালাম ক্যাম্পাস। এখন আমি দেউলিয়া হয়ে পার্কে বসে কাপলের প্রেম দেখি আর বাদাম খাই। 😉

এভাবেই হারিয়ে যায় মানুষের জীবনের সবচেয়ে স্মৃতিময় সময় তথা ভার্সিটির জীবনকাল যা আর কখনো ফিরে আসেনা।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© ২০২১ | দৈনিক প্রতিবেদন কর্তৃক সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত

Design BY NewsTheme